‘বাংলাকে ভুলে ইংরেজি নয়’

59

নিজস্ব প্রতিবেদক :

একুশ শতকে চলতে হলে ইংরেজি শিখতে হবে। তবে এ জন্য বাংলা ভুলে গেলে হবে না। তাই শিক্ষার মাধ্যম হিসেবে ইংরেজি ও বাংলার মধ্যে বিভাজন কমিয়ে আনার ওপর জোর দিয়েছেন গবেষক, শিক্ষক ও বিশেজ্ঞরা।

শনিবার বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেডের (ইউপিএল) ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে আলোচকরা এ মতামত দেন।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন আইএলওর সাবেক পরামর্শক অর্থনীতিবিদ ড. রিজওয়ানুল ইসলাম। আলোচনায় আরও উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক শায়ের গফুর, অধ্যাপক সৌরভ সিকদার, কথাসাহিত্যিক আন্দালিব রাশদী, লেখক ফিরোজ আহমেদ প্রমুখ।

আলোচকরা বলেন, একুশ শতকে চলতে হলে ইংরেজি শিখতে হবে। তবে এ জন্য বাংলা ভুলে গেছে হবে না। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনেক গবেষণা হয়। যা সম্পূর্ণ ইংরেজিতে। এ মনোভাব পাল্টাতে হবে। আমরা গবেষণা করবো বাংলায়। তা বিদেশে অনুবাদ করে পাঠাতে হবে।

তারা বলেন, আমাদের দেশে শিক্ষা পদ্ধতি আগাগোড়া ভুল। নানামুখী শিক্ষাব্যবস্থা চালু আছে। এটি পরিবর্তন করে প্রাথমিক পর্যায়ে একমুখী শিক্ষাব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।

তারা আরও বলেন, জাপানিরা মৌলিক শিক্ষায় মাতৃভাষাকে গুরুত্ব দিয়ে ক্রমান্বয়ে বিদেশি ভাষা সরিয়ে নিয়েছে। এখন অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত তাদের মাতৃভাষায় পাঠদান করা হয়। অষ্টম শ্রেণি পর থেকে তারা বিদেশি শিক্ষা দেন। এতে করে শিক্ষ, গবেষণা তারা পিছিয়ে নেই। বরং অনেক ক্ষেত্রে পশ্চিমাদের চেয়ে এগিয়ে গেছে।