সরকারের নগ্ন হস্তক্ষেপে খালেদা জিয়ার কারাবাস দীর্ঘ হচ্ছে-এনডিপি

61

২০ দলীয় জোটের শরীক ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি- এনডিপি’র চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্ত্তজা ও এনডিপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, সরকার সাবেক ৩ বারের প্রধানমন্ত্রী, ২০ দলীয় জোটের নেতা, বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার কারাবাস পরিকল্পিতভাবে দীর্ঘ করছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, আইন মন্ত্রী প্রকাশ্যেই বললেন ‘খালেদা জিয়া জামিন পেলেও মুক্তি পাবে না’। তার এই বক্তব্য প্রমাণ করে সরকারের সরাসরি নগ্ন হস্তক্ষেপ রয়েছে।

এদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া। তিনি ২৩টি আসনে নির্বাচন করে বিপুল ভোটে জয়লাভ করেছেন। তার জীবন ইতিহাসে কোন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে পরাজিত হওয়ার ঘটনা নেই। বাংলাদেশের রাজনীতিতে তিনি কখনো আপোস করেন নাই। জনগণের সাথে এবং পাশে থেকে রাজনীতি করে তিনি আজ সকলের কাছে জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করছেন।

৭৩ বছর বয়সী একজন বয়োঃবৃদ্ধ ব্যক্তি হয়েও তিনি নুয়ে পড়েননি। অত্যন্ত সাহসীকতার সাথে ২০ দলীয় জোট ও বিএনপির নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। ভোটারবিহীন সরকার সবচেয়ে বেশী ভয় ও আতঙ্ক মনে করে বেগম খালেদা জিয়াকে। আর এ কারণেই তার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন একটি মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়ে দিয়েছেন। হাইকোর্ট যখন মামলায় জামিন দিল তখন অন্য একটি মামলায় গ্রেফতার দেখানো হলো। পরবর্তীতে পূর্বের মামলাও নতুন করে শুনানীর দিনক্ষণ শুরু হল। আইন যদি তার নিজস্ব গতিতে চলে আমরা বিশ্বাস করি সোমবার বেগম খালেদা জিয়ার জামিনাদেশ বহাল থাকবে। আর সরকার যদি আরো বেশী নগ্ন হয় তাহলে তার কারাবাস আরো দীর্ঘ হতে পারে। এনডিপির পক্ষ থেকে নেতৃবৃন্দ বলেন, এখন সময় এসেছে জাতীয় ঐক্যের। বিচ্ছিন্নভাবে কথা না বলে সকলকে এক প্লাটফর্মে এসে দুঃশাসনের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন গড়ে তুলতে হবে এবং সবাইকে এক প্লাটফর্মে আনার দায়িত্ব বিএনপিকেই গ্রহণ করতে হবে।

বিগত ৫ জানুয়ারির অবৈধ নির্বাচনে বাংলাদেশের যে সমস্ত রাজনৈতিক দল নিবন্ধন থাকা সত্ত্বেও অংশগ্রহণ করেনি তাদের সবাইকে এক প্লাটফর্মে এনে যুগোপযোগী আন্দোলনের মাধ্যমে ফ্যাসিবাদ সরকারের পতন আন্দোলন ত্বরান্বিত করার আহ্বান জানান।