আমরা ক্ষমতাকে ভোগের বস্তু মনে করিনা- প্রধানমন্ত্রী

61

ঢাকা নিউজ ডেস্ক :

আমরা (আ:লীগ) ক্ষমতাকে ভোগের বস্তু মনে করিনা বলে মন্তব্য করেছেন আ:লীগের সভাপতি ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বৃহস্পতিবার বিকালে ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত জনসভায় শেখ হাসিনা বলেন, ক্ষমতাকে আমরা ভোগের বস্তু মনে করিনা। ক্ষমতা মনে করি জনগনকে সেবা করার। প্রধান মন্ত্রী হিসেবে আমি মনে করি আমি জনগণের সেবক। তিনি আরও বলেন, আমার কাছে দাবি করার কিছু নেই। আমি বাংলাদেশের আনাচে কানাচে চিনি। দেশের বিভিন্ন জায়গায় আমি গিয়েছি। আমি মাইলের পর মাইল পায়ে হেঁটেছি, নৌকায় চড়েছি, ট্রেনে যাতায়াত করেছি। আমি ভালো করে জানি দেশের কোথায় কোন সমস্যা।
তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুরের কাছে শুনেছি কীভাবে বাংলাদেশের উন্নয়ন হবে। এজন্য আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে দেশের উন্নয়ন হয়। আর বিএনপি এলে কোনো উন্নয়ন হয় না।

‘বিএনপি তো লুটপাটেই ব্যস্ত। তার ছেলেরা ব্যাংক থেকে টাকা লটু করে নিয়ে চলে গেছে। এক টাকাও ফেরত দেয়নি। সেই অর্থ ফিরিয়ে আনা হচ্ছে,’ বলেন প্রধানমন্ত্রী।
‘বিএনপি ক্ষমতায় এলে মানুষ উপহার পায় লাশ। আর আমরা ক্ষমতায় এলে মানুষ পায় উন্নয়ন।’
খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, বিদেশ থেকে এতিমের জন্য আনা টাকা মেরে খেয়েছে। যে এতিমের টাকা মেরে জেলে গেছে তার জন্য আবার আন্দোলন কিসের।
এতিমের হক না দিলে তার জন্য কোরআনে শাস্তির কথা উল্লেখ রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বিএনপি মহাসচিবের উদ্দেশ্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম সারাক্ষণ মিথ্যা কথা বলেন। মিথ্যা বলতে বলতে তার মুখ ব্যথা হয়ে গেছে। মিথ্যা বললে আল্লাহও নারাজ হন।
বিমান প্রতিমন্ত্রী থাকায় অবস্থায় মির্জা ফখরুল বিমানকে ধ্বংস করে গেছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আওয়ামী লীগের কাজ জনগণের উন্নয়ন করা। দেশের ভাগ্য পরিবর্তন করা। এটাই আমাদের ওয়াদা।

যুদ্ধাপরাধীরা বাংলাদেশের উন্নতি চায়নি। তারাই এ দেশের উন্নয়ন করতে পারবে না। বিএনপি-জামায়াত চক্র দেশের অন্তত ৫০০ মানুষকে পুড়িয়ে মেরেছে।
এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৬৮টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন।