এ যেন আরেক ‘শাহবাগ’

58

মেহদেী খান, রাবি প্রতিনিধি :

রাজপথে আন্দোলনরত হাজার হাজার শিক্ষার্থী আর তাদের স্লোগানে কেঁপে উঠছে মহাসড়ক। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রধান ফটক সংলগ্ন ঢাকা-রাজাশাহী মহাসড়কে জনসমুদ্রের জোয়ার উঠেছে আজ। সবারই একটাই দাবি ‘কোটা ব্যবস্থার সংস্কার’। উত্তাল মহাসড়ক দেখে মনে হচ্ছে- এ যেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘শাহবাগ’।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে আজ বুধবার আবারো ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সকাল ১০টায় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে জড়ো হয়ে তারা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে। এর আধা ঘণ্টা পরই পাঁচ হাজারের অধিক শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে মহাসড়ক অবরোধ করে অবস্থান নেয়। সেখানে আন্দোলনকারীরা ‘বঙ্গবন্ধুর বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘পিতা তুমি ফিরে এসো, বৈষম্য দূর করো’, ‘মতিয়ার চামড়া, তুলে নিব আমরা’, ইনুর চামড়া, তুলে নিব আমরা’ ইত্যাদি স্লোগান দিচ্ছেন। প্রায় পাঁচ হাজারের অধিক শিক্ষার্থীর স্লোগানে উত্তাল হয়ে উঠেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। কর্মসূচিতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশকিছু শিক্ষকও উপস্থিত রয়েছেন।

আন্দোলনে একাত্মতা প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. আকতার বানু বলেন, ‘আমি এই আন্দোলন সম্পর্কে কয়েকটি কথা বলতে চাই। প্রথমত এ আন্দোলন সরকারবিরোধী নয়। দ্বিতীয়ত আমরা মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান করি, আমরা তাঁদের বিরুদ্ধেও নয়। কোটা সংস্কার আন্দোলন নায্য আন্দোলন। এটি সারাদেশের সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলন।’ এসময় দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এর আগে ‘সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’ রাবি শাখার আহ্বায়ক মাসুদ মুন্নাফ বলেছিলেন, কেন্দ্রীয় কমিটির কর্মসূচি অনুযায়ী আমরা রাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করেছি। তবে মাস্টার্স ও চতুর্থ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা এ কর্মসূচির বাইরে থাকবে। এছাড়া দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত আমাদের মহাসড়ক অবরোধ কর্মসূচি চলবে।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, ‘আমার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে প্রস্তাব দিয়েছিলাম, তারা যেনো ক্যাম্পাসের ভিতরে আন্দোলন করে। কিন্তু তারা আমাদের আশ্বস্ত করেছে কোনভাবেই সহিংসতা ঘটাবে না। আন্দোলনটি অহিংস হবে। ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে সারাদেশের মতো এখানেও আন্দোলনটি চলছে।’

এদিকে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) সব বিভাগের ক্লাস বর্জন করে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। বেলা ১১টা থেকে তারা রুয়েটের প্রধান ফটকের সামনে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে।