শিশু ধর্ষণ থামছে না ভারতে

24

ভারতে শিশু ধর্ষণের ঘটনা বেড়েই যাচ্ছে। ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের কাঠুয়ার যাযাবর মুসলিম সম্প্রদায়ের ৮ বছরের শিশু আসিফার ধর্ষণ এবং নির্মম হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পর দেশজুড়ে বিক্ষোভ আর আন্দোলনের পরেও শিশু ধর্ষণের ঘটনা থামছেই না। ওই ঘটনার পরেও আরও বেশ কয়েকটি শিশু ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের শিকার হলো।

সম্প্রতি বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে নয় বছরের এক শিশু। শুধু তাই নয় ধর্ষণের পর ওই শিশুকে হত্যা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে উত্তর প্রদেশের ইতাহ শহরে মা-বাবার সঙ্গে বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়েছিল নয় বছরের শিশুটি। সেখানেই তাকে ধর্ষণ করে এবং পরে গলা টিপে হত্যা করা হয়।

ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত পিন্টু ওই বিয়ে বাড়িতে রাধুঁনির কাজ করতে এসেছিল। বিয়ের অনুষ্ঠানে আসা শিশুটিকে দূরের একটি নির্জন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে এবং পরে গলা টিপে খুন করে ওই অভিযুক্ত।

অনেক সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরেও মেয়েকে দেখতে না পেয়ে তাকে খুঁজতে শুরু করেন বাবা-মা। প্রতিবেশীদের সঙ্গে করে পুরো গ্রামে শিশুটিকে খোঁজা হয়। পরে ভোর ৩টার দিকে শিশুটির মৃতদেহ খুঁজে পায় গ্রামের বাসিন্দারা।

এরপরই পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। ইতোমধ্যেই অভিযুক্ত পিন্টুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিকে, গত বুধবার ছত্তিশগড়ের কবিরধাম জেলাতেও একই ঘটনা ঘটেছে। বিয়ে বাড়িতে নিমন্ত্রণ খেতে আসা ১০ বছরের এক শিশুকে প্রথমে ধর্ষণ ও পরে মাথায় পাথর দিয়ে আঘাত করে খুন করে ২৫ বছরের এক ব্যক্তি। অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি বরের বন্ধু এবং এবং ওই শিশুটির পূর্ব পরিচিত ছিল। তাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিজের দোষ স্বীকার করেছে সে।

উত্তর প্রদেশে এক শিশুকে ধর্ষণের ঘটনায় উন্নাওয়ের এক সংসদ সদস্য জড়িত থাকার ঘটনায় ইতোমধ্যেই জনগণের রোষের মুখে পড়েছে বিজেপি সরকার। তার মধ্যেই একের পর এক শিশু ধর্ষণ ও খুন হচ্ছে। এ নিয়ে এখনই যদি সরকার কোনো কঠোর পদক্ষেপ না নেয় তাহলে এই পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করবে।