সাকিবের ২ রান, মুস্তাফিজের ১ উইকেট

31

সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে দ্বিতীয় দেখায়ও দারুণ বোলিং করেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। আর বোলারদের অসাধারণ বোলিংয়ে হায়দরাবাদকে অল্প রানেই বেঁধে ফেলেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার দিনের একমাত্র ম্যাচে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৮ বল বাকি থাকতে ১১৮ রানেই গুটিয়ে গেছে হায়দরাবাদ। আইপিএলের ইতিহাসে এটি হায়দরাবাদের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন রান।

হায়দরাবাদের হয়ে ব্যাটিংয়ে ভালো করতে পারেননি সাকিব আল হাসান। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হওয়ার আগে ৪ বলে করেছেন ২ রান। যদিও ভুলটা ছিল উইলিয়ামসনেরই।

পেসার মিচেল ম্যাকক্লেনাগানের বল শর্ট মিড উইকেটে খেলে সিঙ্গেলের জন্য ‘কল’ করেছিলেন উইলিয়ামসন। কিন্তু পরক্ষণেই আবার ‘না’ বলে দেন তিনি। সাকিব ততক্ষণে উইকেটের প্রায় মাঝামাঝি চলে গেছেন। সূর্যকুমার যাদব সরাসরি থ্রোয়ে যখন স্টাম্প ভেঙে দিলেন, সাকিব তখন অনেকটা দূরে।

মুস্তাফিজ অষ্টম ওভারে প্রথমবার বল হাতে নিয়ে ৭ রান দিয়ে কোনো উইকেট পাননি। ১৫তম ওভারে ফিরেও থাকেন উইকেটশূন্য, তবে রান খরচ করেন মাত্র ৪। ইনিংসের ১৭তম ওভারে দেন মাত্র ১ রান। এই ওভারেই আবার রান আউট হয়ে ফেরেন সিদ্ধার্থ কউল।

মুস্তাফিজ নিজের কোটার শেষ ওভারটি করতে আসেন ইনিংসের ১৯তম ওভারে। প্রথম দুই বলে সুযোগ থাকলেও কোনো রান নেননি ইউসুফ পাঠান। তৃতীয় বলে হাঁকান ছক্কা।

বাঁহাতি পেসার পরের বলটা দিয়েছিলেন শর্ট। আবার ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে মিড উইকেটে হার্দিক পান্ডিয়ার হাতে ধরা পড়েন ইনিংস সর্বোচ্চ ২৯ রান করা ইউসুফ। উইলিয়ামসনও করেছেন ২৯ রান।

মুস্তাফিজ ৩.৪ ওভারে ১৮ রানে নিয়েছেন ইউসুফের উইকেটটি। মুম্বাইয়ের ছয় বোলারের মধ্যে মুস্তাফিজের ইকনোমি রেটই শুধু পাঁচের নিচে (৪.৯০)। ৩ ওভারে ঠিক ৫ ইকনোমি রেটে ১৫ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন মায়াঙ্ক মারকান্দে। পান্ডিয়াও ২ উইকেট নিয়েছেন ২০ রানে।

হায়দরাবাদের বিপক্ষে প্রথম দেখায়ও দারুণ বোলিং করেছিলেন মুস্তাফিজ। ৪ ওভারে ২৪ রানে নিয়েছিলেন ৩ উইকেট।