সাংবাদিক দমনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নয়: মোস্তফা জব্বার

86

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তফা জব্বার বলেছেন, আমরা যত দ্রুত ডিজিটাল হচ্ছি, ততই ডিজিটাল অপরাধ বাড়ছে। এসব ডিজিটাল অপরাধ দমনের জন্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করা হচ্ছে। সাংবাদিকদের দমনের জন্য এ আইন করা হচ্ছে না। তারপরও যেসব ধারা নিয়ে আপত্তি উঠেছে, সেগুলো নিয়ে সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে আলোচনা করব। সভায় এডিটর’স কাউন্সিলের প্রতিনিধিদেরও অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হবে।

বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস উপলক্ষে আজ সকালে জাতীয় প্রেসক্লাব লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত ‘বাংলাদেশে মুক্ত গণমাধ্যমের বর্তমান চিত্র’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

কমনওয়েলথ জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (সিজেএ) এ সেমিনারের আয়োজন করে। এমআরডিআই ও ফোয়ো মিডিয়া ইনস্টিটিউটের সহযোগিতায় আয়োজিত এ সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম। ডিজিটাল আইনের বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ব্যারিস্টার তানজীব উল আলম।

মোস্তফা জব্বার আরও বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বিতর্কিত ধারাগুলো এখনও পরিবর্তনের সুযোগ রয়েছে। সরকার কোন উপনিবেশীয় সরকার নয়, যেকোন আইন করে তা জনগণের উপর চাপিয়ে দেবে। সবার মতামত নিয়েই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটি চূড়ান্ত করা হবে। তিনি বলেন, এ বিষয়ে জাতীয় পত্রিকার সম্পাদকদের সংগঠন এডিটর’স কাউন্সিলের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। যেসব ধারায় সাংবাদিকদের উদ্বেগ রয়েছে, সেগুলো লিখিত আকারে তাদের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির কাছে দিতে বলা হয়েছে। স্থায়ী কমিটির পরবর্তী সভায় লিখিত আপত্তি নিয়ে আলোচনা হবে। সভায় এডিটর’স কাউন্সিলের প্রতিনিধিদেরও অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হবে।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত। সভাপতিত্ব করেন কমলওয়েলথ জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সহসভাপতি আবদুর রহমান খান।