আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন কেকেআরের তারকা বোলার কুলদীপ

48

তার স্পিন পড়তেই পারছেন না প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানরা। বিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের রাতের ঘুম কেড়ে নিচ্ছেন কলকাতা নাইটরাইডার্স’র চায়নাম্যান বোলার কুলদীপ সিং। মঙ্গলবার ইডেন গার্ডেন্স-এ রাজস্থান রয়্যালসের ব্যাটিং মেরুদণ্ড একাই ভেঙে দেন কুলদীপ। কুড়ি রান দিয়ে চারটি উইকেটের মালিক তিনি।

কুলদীপের উপরে এখন হাজার ওয়াটের আলো। তাকে দলে রাখা নিয়ে অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও তৎকালীন কোচ অনিল কুম্বলের মধ্যে মন কষাকষি শুরু হয়ে গিয়েছিল। পরে তা অন্য আকার ধারণ করে। সেই কুলদীপ একদিন আত্মহত্যা করার ভাবনাচিন্তা করেছিলেন।

গত বছর লখনউয়ে একটি অনুষ্ঠানে এসে নাইট-স্পিনার ফাঁস করেছিলেন সেই তথ্য। তখন কুলদীপের বয়স ১৩। সেই সময়ে উত্তরপ্রদেশের অনূর্ধ্ব ১৫ দলের জন্য ট্রায়াল দিয়েছিলেন কুলদীপ। দলে সুযোগ পাওয়ার জন্য ঘাম ঝরাতে হয়েছিল তাকে। তবুও দলে জায়গা হয়নি কুলদীপের। অনূর্ধ্ব ১৫ রাজ্য দলে জায়গা না হওয়ায় মানসিক দিক থেকে ভেঙে পড়েছিলেন কুলদীপ। তখনই আত্মহত্যার চিন্তা ভিড় করেছিল কুলদীপের মনে। শুধু আত্মহত্যার চিন্তাভাবনাই নয়, ক্রিকেটও ছেড়ে দেওয়ার কথা ভেবেছিলেন তিনি।

এই সময়ে এগিয়ে আসেন কুলদীপের বাবা। কুলদীপকে বুঝিয়ে সুজিয়ে আবার ক্রিকেটে পাঠান তিনি। বাবার পরামর্শ পেয়ে বদলে যান চায়নাম্যান বোলার। এখন কুলদীপ জাদু ছড়াচ্ছেন মাঠে। তার বল পড়তেই পারছেন না প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানরা। শুধু আইপিএলের মতো টি টোয়েন্টি ফরম্যাটেই নন, ভারতের জার্সিতেও ম্যাচ উইনার হয়ে উঠছেন কুলদীপ।