পজেশন বিক্রি করে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা বাগেরহাটে পাউবোর সরকারি কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি বেহাত : নির্মান হচ্ছে পাকা দালান-কোঠা

53

এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির, বাগেরহাট প্রতিনিধি :

বাগেরহাটের চিতলমারীতে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা দখল করে নির্মান করা হচ্ছে অবৈধ কাঁচা-পাকা স্থাপনা। এভাবে ধীরে ধীরে সরকারি কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি বেহাত হয়ে যাচ্ছে। এ দখল দারিত্বের পিছনে এলাকার কতিপয় চিহ্নিত ভূমি খেকো চক্র উঠে-পড়ে লেগেছে। এ অবৈধ দখলের চিত্র চিতলমারী সদর বাজার থেকে পাটরপাড়া-রায়গ্রাম ও ডুমুরিয়া বাজার হয়ে গোদাড়া গেট এলাকা পর্যন্ত প্রায় ২৫ কিলোমিটার এলাকার নিত্য-নৈমত্তিক ব্যাপার। শুধু ডুমুরিয়া বাজার এলাকাতেই পাউবোর জায়গার ‘পজেশন’ বিক্রি করে প্রতারক অনুপ বাড়ৈ হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। বিষয়টি যেন দেখার কেউ নেই, শোনারও কেউ নেই। সোমবার বড় আফসোশের সাথে ডুমুরিয়া বাজারে বসে স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে কথাগুলো জানালেন কয়েকজন প্রবীণ ব্যক্তি।

ডুমুরিয়া গ্রামের দেবাশিষ বাড়ৈ জানান, চিতলমারী সদর বাজার থেকে ডুমুরিয়া বাজার হয়ে গোদাড়া গেট এলাকা পর্যন্ত পানি উন্নয় বোর্ডের প্রায় ২৫ কিলোমিটার জায়গা জুড়ে ওয়াপদা বেড়িবাধ রয়েছে। এ বেড়িবাধের কয়েক হাজার একর জমি এলাকার প্রভাবশালী মহল দখল করে নিচ্ছে। দখলকৃত এ জায়গায় অবৈধ ভাবে নির্মান করা হচ্ছে বিভিন্ন ধরণের স্থাপনা। দখলকৃত জমির পজেশন বিক্রি করে চক্রটি হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। এ জায়গা দখলকে কেন্দ্র করে এলাকায় কয়েকবার রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে।

 

ওয়াপদা বেড়িবাধের পজেশন ক্রয় করা অমিত কুমার তিনি ওই এলাকার অনুপ বাড়ৈর কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা দিয়ে জায়গা পজেশন নিয়ে ঘর করে ব্যবসা করছেন। এছাড়া অনুপের কাছ থেকে অমূল্য মন্ডল ১ লক্ষ টাকা দিয়ে ও বিজয় মন্ডল দেড় লক্ষ টাকা দিয়ে পজেশন ক্রয় করে দোকান ঘর নির্মান করেছে।

এ ব্যাপারে অনুপ বাড়ৈ স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, ওই জায়গা তিনি পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাছ থেকে লিজ নিয়েছেন। পজেশন বিক্রি করা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার।

তবে বাগেরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জহিরুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা অবৈধ দখল দারিত্বের ব্যাপারে তিনি জেনেছেন। দখলবাজ অনুপ বাড়ৈর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।