কুমিল্লায় দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী তরুণী গণধর্ষণের শিকার হওয়ার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের বিবৃতি

54

অদ্য ০৩.০৬.২০১৮ ইং তারিখ দৈনিক কালের কন্ঠ পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ মাধ্যমে জানতে পারি যে, কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর থানা এলাকায় দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী তরুণী গণধর্ষণের শিকার হওয়ার ঘটনা ঘটেছে । ঘটনা সূত্রে জানা যায় যে, ১৩.০৫.২০১৮ ইং তারিখ রবিবার সন্ধ্যায় দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ওই তরুণী বাড়ির পাশের নলকূপ থেকে পানি আনতে যায়। তখন জামাল, আরিফ ও তাদের সহযোগিরা তার মুখ চেপে কামাল্লা ইউনিয়ন পরিষদের পাশে পরিত্যক্ত তাঁতীঁবাড়িতে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। ঘটনার শিকার তরুণীর মা ০২.০৬.২০১৮ ইং তারিখ মুরাদনগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন । মামলা দায়ের হওয়ার পর আসামিরা মা-মেয়েকে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়ায় তারা গ্রাম ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছেন ।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী তরুণী গণধর্ষণের শিকার হওয়ার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করছে। সেইসাথে ধর্ষণের বিরুদ্ধে শূণ্য সহিষ্ণুতার নীতি গ্রহণ সাপেক্ষে নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতনের ঘটনার ক্রমবর্ধমান প্রবণতার কারণ উদঘাটন করে এরূপ ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে আশু কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও প্রশাসনের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছে।

দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী তরুণীকে পাশবিক নির্যাতনের ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ শাস্তি ও ঘটনার শিকার তরুণীর সুচিকিৎসাসহ তার ও তার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের দাবি জানাচ্ছে। সেইসাথে সারাদেশে সংঘটিত নারী ও কন্যাশিশু নির্যাতন প্রতিরোধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানাচ্ছে ।