বিশ্বকাপ থেকে ট্যাটুর জন্য ব্রিটিশ ফুটবলারকে বরখাস্তের দাবি

30

আর কিছুদিন পরেই শুরু হতে যাচ্ছে রাশিয়া বিশ্বকাপ৷ সবুজ গালিচায় বল গড়ানোর আগেই ব্রিটিশ ফুটবলারকে নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে৷

বিশ্বকাপ অভিযান শুরুর আগে অভিনব একটি ট্যাটু করেছেন ইংল্যান্ডের রহিম স্টারলিং৷ ডান-পায়ের নীচের অংশে অ্যাসল্ট রাইফেলের ট্যাটু করিয়েছেন ব্রিটিশ ফরোয়র্ড৷ সেই ট্যাটু নিয়েই শুরু হয়েছে জোর চর্চা৷ অনেকেই বলছেন এই বিতর্কিত ট্যাটুর জন্য বিশ্বকাপ থেকে বরখাস্ত করা হোক স্টারলিংকে৷

রাইফেলের ট্যটু দেখে ফুটবল দুনিয়ার বেশিরভাগ মানুষই ভুল ব্যাখা করেছেন৷ তাই নিজের এই ট্যাটুর অর্থ বুঝিয়ে দিয়েছেন স্টারলিং৷ জামাইকায় বংশভূত ফুটবলার সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন, ‘ছোটবেলা থেকেই তিনি বন্দুক ছোঁবেন না বলে প্রতিজ্ঞা করেছিলেন!’ ক্রিস গেইল, আন্দ্রে রাসেলের দেশের ফুটবলারের এই কঠিন প্রতিজ্ঞার পিছনে লুকিয়ে রয়েছে মর্মান্তিক কাহিনী৷

স্টারলিংয়ের বয়স যখন ২ বছর, তখন তার বাবা বন্দুকের গুলিতে মারা যান৷ এরপরই বন্দুক না ছোঁয়ার কথা মাথায় আসে তার৷ মনে গভীর বেদনা থেকেই ডানপায়ে রাইফেলের ছবি আঁকিয়েছেন বলে ব্যখা দিয়েছেন ব্রিটিশ ফরোয়ার্ড৷

ট্যাটু বিতর্কে দলের সতীর্থ ও কোচ সাউথগেটকে পাশে পেয়েছেন স্টারলিং৷ ব্রিটিশ কোচ জানিয়েছেন, ‘প্রত্যেক ট্যাটুর পিছনে একটি গল্প থাকে৷ স্টারলিংয়ের ক্ষেত্রেও একটা কাহিনী রয়েছে৷ তাই ওর সিদ্ধান্তকে আমাদের সম্মান জানানো উচিত৷’