“সাংবাদিকতা জগতের আলোকিত নক্ষত্র,দেশবরেণ্য সাংবাদিক গোলাম সারওয়ারের মৃত্যুতে শোক “

14

যিনি সারা জীবন শিরোনাম লিখছেন তিনি আজ শিরোনাম । সাংবাদিক জগতের মুরুব্বি দক্ষিন বঙ্গের অহংকার বরেণ্য সাংবাদিক গোলাম সারওয়ার আর নেই। সোমবার (১৩ আগস্ট) বাংলাদেশ সময় রাত ৯টা ২৫ মিনিটে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি( ইন্নালিল্লাহি…. রাজেউন)। খ্যাতিমান সাংবাদিক গোলাম সারওয়ার সর্বশেষ দৈনিক সমকাল পত্রিকার সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

সাংবাদিকতা জগতের আলোকিত নক্ষত্র,দেশবরেণ্য সাংবাদিক,দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার সাবেক বার্তা সম্পাদক, দৈনিক সমকালের সম্পাদক,সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি,বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট(পিআইবি) এর চেয়ারম্যান,বিশিষ্ট সাংবাদিক গোলাম সারওয়ারের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছি। আমি মনে করি তার মৃত্যুতে সংবাদপত্র জগতের অপূরণীয় ক্ষতি হলো।মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী গোলাম সারওয়ার সাংবাদিকদের অধিকার আদায় ও গনমাধ্যমের স্বাধীনতার আন্দোলনে  তিনি ছিলেন সবসময় সোচ্চার ও দিয়েছেন নেতৃত্ব।মুক্ত চিন্তার ধারক ও বাহক আপোষহীন এই কলম সৈনিক ও শব্দসৈনিক আজীবন সততা, নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে গেছেন।তিনি ছিলেন জীবন্ত কিংবদন্তি।
এই বটবৃক্ষের শ্যামলশোভন ছায়াতলে স্নেহময় সান্নিধ্যে বহু প্রতিভাবান সাংবাদিকতার বিকাশ ঘটেছে।তার অনুজরা ছিলেন তার কাছে শিক্ষানবিশ।তিনি ছিলেন ধ্রুবতারার মতো উজ্জ্বল।গৌণখবরও তার কলমের ছোঁয়ায় পরশপাথরের মতো ঝিলিক
দিয়ে উঠতো।সুখপাঠ্য হয়ে উঠতো অপাঠ্য খবরও।তার কলমে ছিলো ইন্দ্রজাল।অসামান্য এক বিরল প্রতিভাকে আজ আমরা হারালাম।
সংবাদ রচনায় সারওয়ার ভাইয়ের তীক্ষ্ন ও তীব্রশব্দ আর অভূতপূর্ব ভাষার কারুকাজ দ্বিতীয় কারও ছিলো না।বসন্ত,শরৎ,হেমন্ত,পয়লা বৈশাখ,রাবীন্দ্রিক গীতিময়তায় উৎকীর্ন বারবার পড়েও আশা মিটতো না।তিনি ছিলেন সব্যসাচী ও অসাধারন ছড়াকার।নির্মেদ প্রতিবেদন,গল্প,যেকোন বিষয়ে প্রবন্ধ-নিবন্ধ,রাজনৈতিক বিশ্লেষন,ক্রীড়াভাষ্য,সিনিয়র রিপোর্টিংয়ে তিনি ছিলেন অতুলনীয়।
সারওয়ার ভাই ব্যক্তিত্বে ছিলেন অভিজাত।রাশভারী মনে হলেও তিনি ছিলেন কোমল হৃদয়ের অমায়িক রসিক মানুষ।বড় ভালো ব্যক্তি ছিলেন তিনি।
সফলতার রাজকুমার ছিলেন এই বিরল প্রতিভাধর ক্ষণজন্মা মানুষটি। তার রাজনৈতিক বিশ্বাস থাকলেও লেখনীর ক্ষেত্রে তা প্রতিফলিত হলেও তিনি ছিলেন মুক্তবুদ্ধিভিত্তিক চর্চার অনুকরনীয় দৃষ্টান্ত।তাকে ছাড়া বাংলাদেশের সংবাদপত্রের ইতিহাস লেখা সম্ভব নয়।বিরল এই চরিত্রের মানুষটির গুনের কথা বলে শেষ করা যাবে না।বাঙালি,বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শেখ মুজিবুর রহমান যেমন একসূত্রে গাঁথা ঠিক তেমনি প্রতিটি আন্দোলন -সংগ্রামের কলমসৈনিক হিসেবে গোলাম সারওয়ার আমাদেরকে কৃতজ্ঞতার আবদ্ধে বন্ধন করে রেখেছেন।
 তার মৃত্যুতে গণমাধ্যম জগতে বিরাট এক শুন্যতার সৃষ্টি হলো।তা পুরন হওয়ার মত নয়। আমি তার বিদেহী আত্নার মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। আল্লাহ যেন তাকে বেহেশত নসিব করেন এই দোয়া করছি।
দৈনিক সমকালের সম্পাদক গোলাম সারওয়ার আর নেই (ইন্না লিল্লাহি… রাজিউন)। ১৩ আগস্ট,২০১৮ তারিখে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টা ২৫ মিনিটে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫।
জানা গেছে, সোমবার বিকেল ৫টায় শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ৩ আগস্ট মধ্যরাতে সমকাল সম্পাদককে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়। পরদিন সকালে তাকে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসার পর তার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়। কিন্তু অবস্থার অবনতি হলে সোমবার বিকেলে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।
এর আগে গত ২৯ জুলাই মধ্যরাতে দেশবরেণ্য সাংবাদিক, সম্পাদক পরিষদের সভাপতি গোলাম সারওয়ার রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হন।