সমস্যা সমাধানে সরকারের ইতিবাচক উদ্যোগ নেয়া উচিৎ : মির্জা ফখরুল

35

একুশে আগস্টের রায় নিয়ে নতুন সংকট সৃষ্টির পরিবর্তে বিদ্যমান সমস্যা সমাধানে সরকারের ইতিবাচক উদ্যোগ নেয়া উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

লিখিত বক্তব্যে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘২০০৪ সালে ২১ আগস্ট আওয়ালী লীগের সভায় গ্রেনেড হামলার ঘটনায় আমরা তখনও নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছি, এখনও জানাই এবং প্রকৃত দায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। কিন্তু এ ঘটনাকে পুঁজি করে সরকার যেভাবে বিএনপির মূল নেতাদের অন্যায়ভাবে বিপদাপন্ন করার জন্য সরকারের পুলিশ, গোয়েন্দা, তদন্ত কর্মকর্তা এমনকি বিচার বিভাগকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহারের নগ্ন প্রয়াস চালাচ্ছে তা কোনো সভ্য সমাজেই গ্রহণযোগ্য হতে পারে না।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, জাতীয় রাজনীতিতে এর বিষময় পরিণতি সম্পর্কে ফের ভাবার জন্য সরকারকে পরামর্শ দিচ্ছি। অন্যায়ভাবে মিথ্যা অভিযোগে খালেদা জিয়াকে কারাদণ্ড দিয়ে সরকার জনগণকে ক্ষুব্ধ করেছে। এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি দেশে জনগণের মধ্যে দারুন ক্ষোভের সৃষ্টি করবে, যা কারো জন্যই প্রত্যাশিত নয়। আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে আমরা আলোচনার মাধ্যমে বিদ্যমান সব সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধানকে দেশের স্বার্থে একান্ত প্রয়োজনীয় মনে করি। নতুন সংকট সৃষ্টির পরিবর্তে সরকারের উচিত বিদ্যমান সমস্যাদি সমাধানের উদ্দেশ্যে ইতিবাচক উদ্যোগ নেয়া।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস-চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদিন প্রমুখ।